বিজ্ঞান কি? বিজ্ঞান এর ব্যবহার | বিজ্ঞান ও প্রকৌশল | বাংলাহাব Answers - বাংলায় প্রশ্ন উত্তর সাইট
বাংলাহাব Answers ওয়েব সাইটে স্বাগতম । যদি আপনি আমাদের সাইটে নতুন হয়ে থাকেন তাহলে আমাদের ওয়েব সাইটে রেজিষ্ট্রেশন করে আমাদের সদস্য হয়ে যেতে পারবেন। আর যেকোন বিষয়ে প্রশ্ন করা সহ আপনার জানা বিষয় গুলোর প্রশ্নের উত্তর ও আপনি দিতে পারবেন। তাই দেরি না করে এখনি রেজিষ্ট্রেশন করুন। ধন্যবাদ
0 টি ভোট
"বিজ্ঞান ও প্রকৌশল" বিভাগে করেছেন (120 পয়েন্ট)
প্রাচীন সভ্যতা হতে শুরু করে আজকের এই নগর সভ্যতার দিকে তাকালে আমরা এক অভূতপূর্ব পরিবর্তন লক্ষ্য করতে পারি। এই যুগান্তকারী পরিবর্তন এনে দিয়েছে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি। সারাবিশ্বের সর্বত্র আজ বিজ্ঞানের জয় জয়কার। বিজ্ঞান মানুষের জীবনযাত্রাকে করে দিয়েছে সহজ, বেগবান, সভ্যতায় এনে দিয়েছে পরিপূর্ণতা ও বহুমাত্রিকতা। বর্তমানে মানুষের দৈনন্দিন জীবনের প্রতিটি অংশে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির ছোঁয়া আছে। সমাজের যে স্তরে এখনো বিজ্ঞানের ছোঁয়া লাগেনি, সে স্তরে এখনো পর্যন্ত উন্নতি প্রবেশ করতে পারেনি। তাই বলা যায় যে, মানব সভ্যতার উন্নয়নের মূলে রয়েছে বিজ্ঞান।

বিজ্ঞান: ইংরেজি Science শব্দের বাংলা প্রতিশব্দ বিজ্ঞান। Science শব্দটি এসেছে Scio শব্দটি থেকে। যার অর্থ ‘জানা বা শিক্ষা লাভ করা’। বিজ্ঞান শব্দের শব্দগত অর্থ হলো ‘বিশেষ জ্ঞান’। আমাদের আশেপাশের জীব ও বস্তুজগৎ সম্পর্কে পর্যবেক্ষণ, পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও বিজ্ঞান সম্মত অনুসন্ধানের মাধ্যমে প্রাপ্ত যে বিশেষ জ্ঞান মানুষের জ্ঞানভান্ডারকে সমৃদ্ধ করে চলছে তাকে আমরা বিজ্ঞান বলে আখ্যায়িত করতে পারি। প্রকৃতপক্ষে বিশ্বজগতের অজানা রহস্য সম্পর্কিত সুসংবদ্ধ জ্ঞানই হলো বিজ্ঞান।

প্রযুক্তি: প্রযুক্তি শব্দটির ইংরেজি প্রতিশব্দ Technology শব্দটি গ্রিক শব্দ Techne এবং logia থেকে এসেছে। বিজ্ঞানের জ্ঞানকে বিশেষভাবে ব্যবহার করে সমস্যা সমাধানে অথবা পূর্ববর্তী সমস্যার উন্নতিসাধনে, সুনির্দিষ্ট কার্যাবলী বিজ্ঞানসম্মতভাবে সম্পন্ন করাই হলো প্রযুক্তি। এক কথায় বিজ্ঞানের নানা তত্ত্ব এবং সূত্রের প্রায়োগিক দিককেই বলে প্রযুক্তি।

উদ্ভব ও ক্রমবিকাশ: যেদিন প্রথম আগুনের আবিষ্কার হলো, সেদিন থেকেই যেন মানব সভ্যতার উন্মেষ ঘটেছে। তারপর থেকেই বিভিন্ন আবিষ্কার এর মধ্য দিয়েই মানব সভ্যতার অগ্রগতি ঘটল। এসব কিছু সম্ভব হয়েছে বিজ্ঞানের বিভিন্ন আবিষ্কারের ফলে। মানুষের কৌতুহলী মন তাকে প্রাকৃতিক নানা বিষয় সম্পর্কে আগ্রহী করে তোলে। তারই ফলশ্রুতিতে বিভিন্ন বিজ্ঞানভিত্তিক আবিষ্কার এবং প্রযুক্তির আবির্ভাব। এসব বিজ্ঞানভিত্তিক আবিষ্কার ও প্রযুক্তি মানুষ তার প্রয়োজনে ব্যবহার করে আসছে।

বিজ্ঞান ও বিজ্ঞানী: আমরা অনেকেই আমাদের চারিদিকের পরিবেশের বিচিত্র ঘটনা প্রবাহ অহরহ পর্যবেক্ষণ করে থাকি। কিন্তু সমাজে এমন অনেক ব্যক্তি আছেন, যারা শুধুমাত্র পর্যবেক্ষণ করেই থেমে থাকেন না। এঁরা প্রকৃত রহস্য উদঘাটনের জন্য নিয়মতান্ত্রিক উপায়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে এ ঘটনাগুলো কেনো এবং কীভাবে ঘটে ইত্যাদি নানা প্রশ্নের উত্তর খোঁজেন। মানুষের কল্যাণে নিয়োজিত নিবেদিতপ্রাণ, অনুসন্ধিৎসু ও সৃজনশীল এসব ব্যক্তিবর্গকে আমরা বিজ্ঞানী বলি। অনুসন্ধিৎসু গবেষণাধর্মী মনোভাব, বিনয়, সত্যানুন্ধানে আপোষহীন মনোভাব, সহিষ্ণুতা ও সর্বোপরি মানবপ্রেম বিজ্ঞানীদের চরিত্রের অন্যতম বৈশিষ্ট্য। মানব সেবায় এদের অবদান অনস্বীকার্য।

মানব কল্যাণে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি: বিজ্ঞানের বিভিন্ন আবিষ্কারের মূল লক্ষ্যই হলো মানব কল্যাণ। তাই বিজ্ঞানীগণ বিভিন্ন আবিষ্কার ও প্রযুক্তিগত উন্নয়ন সাধন করে চলেছেন। তারই কিছু উল্লেখযোগ্য দিক নিম্নরূপ-

কৃষি ক্ষেত্রে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি: কৃষিক্ষেত্রে বিজ্ঞানের অবদান অপরিসীম। সভ্যতার সূচনালগ্ন হতে মানুষ কৃষির সাথে জড়িত। কিন্তু সেই প্রাচীন কৃষিপদ্ধতির সাথে বর্তমান কৃষিপদ্ধতির ব্যাপক পার্থক্য বিদ্যমান। কৃষিজ বিভিন্ন যন্ত্রপাতির উদ্ভাবন, কীটনাশকের ব্যবহার, উন্নতজাতের বীজের ব্যবহার যা অধিক ফলনশীল ইত্যাদির সবকিছুই বিজ্ঞানের ফল। মরুভূমির মতো শুষ্ক বালুময় স্থানেও আজকাল ফসল উৎপাদন করা যায় বিজ্ঞানের কল্যাণে।

শিল্প ক্ষেত্রে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি: আঠারো শতকের মাঝামাঝি সময়ের শিল্পবিপ্লব মূলত বিজ্ঞানের হাত ধরেই এসেছে। বাষ্পীয় ইঞ্জিনের আবিষ্কারও বিজ্ঞানের ফল। আগে শিল্প কারখানাগুলো হস্তচালিত থাকলেও বিজ্ঞানের উন্নতির ফলে বিভিন্ন যন্ত্রপাতির আবিষ্কারের দরুণ শিল্পে উন্নতি সম্ভব হয়েছে। এর ফলে শিল্পে যেমন কম সময় লাগছে, কম শ্রম লাগছে, তেমনি উৎপাদনও বেশি হচ্ছে।

শিক্ষা ক্ষেত্রে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি: মানব সম্পদ উন্নয়নে শিক্ষা আবশ্যক। শিক্ষা ক্ষেত্রের বিভিন্ন উপাদান যেমন, বই, কাগজ, কলম ইত্যাদি সবই শিক্ষার বিকাশে অত্যন্ত প্রয়োজনীয় যা প্রকৃতপক্ষে বিজ্ঞানের আবিষ্কার। এছাড়া বর্তমানে শিক্ষাক্ষেত্রে অন্যতম ব্যবহৃত বিষয় হলো কম্পিউটার, ইন্টারনেট। যা পড়াশুনাকে করেছে আরো সহজ ও তথ্যসমৃদ্ধ। পড়াশুনার ক্ষেত্রে ব্যবহৃত সকল দেশি-বিদেশি বই ও পরামর্শকে সহজলভ্য করেছে ইন্টারনেট, যা বিজ্ঞানের অত্যাধুনিক আবিষ্কার।

যোগাযোগ ব্যবস্থায় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি: আদিম সমাজের মানুষের স্থানান্তরের জন্য পায়ে হাঁটা ছাড়া কোনো উপায় ছিল না। পরবর্তীতে ধীরে ধীরে চাকাওয়ালা যান এলো এবং এক পর্যায়ে মোটরযান এলো। এগুলো মানুষের সাথে মানুষের যোগাযোগ স্থাপনে, ব্যবসা বাণিজ্যের প্রসারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। শুধু তাই নয়, বর্তমানে যানবাহনের উন্নতির পাশাপাশি তথ্যপ্রযুক্তির উন্নয়ন বা যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের মাধ্যম হিসেবে এসেছে টেলিফোন, টেলেক্স, ফ্যাক্স, মোবাইল, ইন্টারনেট ইত্যাদি। যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের ফলে আজকাল মানুষকে আর এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় গিয়ে কাজ করতে হয় না। বরং টেলিযোগাযোগের মাধ্যমে তা নিজ জায়গায় থেকেও কাজ করা যায়। এরকম আরেকটি যোগাযোগের মাধ্যম হলো কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট। এটি একটি কৃত্রিম স্যাটেলাইট, যার সাহায্যে যোগাযোগ রক্ষা করা হয়।

চিকিৎসা ক্ষেত্রে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি: সর্বাধুনিক পদ্ধতির চিকিৎসা সেবার মাধ্যমে আজকাল অনেক জটিল ও দূরারোগ্য ব্যধি থেকে মানুষ মুক্তিলাভ করেছে। এমনকি কয়েক বছর আগে যেখানে যক্ষ্মাকে মরণব্যাধি হিসেবে আখ্যায়িত করা হতো, তার মুক্তি এখন মানুষের হাতের নাগালে। এছাড়া শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ যেমন, চোখ, কিডনি ইত্যাদির প্রতিস্থাপন, মূত্রথলি, পিত্তথলী প্রভৃতি হতে পাথর অপসারণ, ক্যান্সার নামক ভয়ানক ও মরণব্যাধির বিভিন্ন ধরণের চিকিৎসা সম্ভবপর হয়েছে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির মাধ্যমেই। এছাড়া বিভিন্ন ধরণের ওষুধের আবিষ্কারও বিজ্ঞান ও প্রযুক

এই প্রশ্নটির উত্তর দিতে দয়া করে প্রবেশ কিংবা নিবন্ধন করুন ।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুলো

+1 টি ভোট
1 উত্তর
28 নভেম্বর 2018 "বিজ্ঞান ও প্রকৌশল" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন শ্রী দে. দা. (220 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
1 উত্তর
20 ডিসেম্বর 2018 "সাধারণ প্রশ্ন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন সাঈদ (260 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
0 টি উত্তর
05 ফেব্রুয়ারি "বিজ্ঞান ও প্রকৌশল" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Ahsan Faruque
0 টি ভোট
0 টি উত্তর
18 জুলাই "সাধারণ প্রশ্ন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল

6.4k টি প্রশ্ন

6.0k টি উত্তর

126 টি মন্তব্য

1.2k জন সদস্য

×

ফেসবুকে আমাদেরকে লাইক কর

Show your Support. Become a FAN!

বাংলাহাব Answers ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।

বিভাগসমূহ

Top Users Nov 2020
  1. Arshaful islam Rubel

    61050 Points

  2. Koli

    60140 Points

  3. Rajdip

    56090 Points

  4. ruhu

    42290 Points

  5. হোসাইন শাহাদাত

    17570 Points

  6. mostak

    17460 Points

  7. puja

    12140 Points

  8. Kk

    5590 Points

  9. Joglul

    5440 Points

  10. hasibur joy

    5410 Points

সবচেয়ে জনপ্রিয় ট্যাগসমূহ

বাংলাদেশ জানতে চাই #ইতিহাস ইতিহাস প্রথম বাংলা সাধারণ প্রশ্ন ভাষা শিক্ষানীয় #বাংলাহাব বিসিএস বাংলাহাব অজানা তথ্য বিশ্ব কম্পিউটার আবিষ্কার #আইন স্বাস্থ্য #জিঙ্গাসা কবিতা অবস্থিত সাহিত্য পৃথিবীর নাম সাধারণ জ্ঞান ক্রিকেট জনক বিজ্ঞান বিশ্বের রাজধানী তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি পৃথিবী শব্দ সালে সাধারণ জ্ঞ্যান কবি কতটি তথ্য-প্রযুক্তি সদর দপ্তর # ঠিকানা জেলা বাংলাদেশে সাধারন প্রশ্ন শিক্ষা ভাষার প্রতিষ্ঠিত খেলোয়াড় ভারত ঢাকা বিভাগ বাংলা সাহিত‍্য টাকা আয়। মুক্তিযুদ্ধ চিকিৎসা সংবিধান প্রযুক্তি স্যাটেলাইট আবেদন আইকিউ সোস্যাল ইন্টারনেট লেখক eassy qussion সংসদ নারী বঙ্গবন্ধু-১ ফেসবুক ভালোবাসা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কত সালে bangladesh সমাজ জাতীয় উপন্যাস প্রথম_স্যাটেলাইট কখন অবস্থান সর্বোচ্চ দেশ আলো অর্থ ইসলাম বি সি এস আমেরিকা বাংলাদেশের সংবিধান জাতিসংঘ গান বৈশিষ্ট্য নোবেল বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের করোনা ভাইরাস সবচেয়ে বড় প্রথম স্বীকৃতি পূর্ব নাম # অ্যান্ড্রয়েড# মোবাইল #জনক মহিলা উচ্চ শিক্ষা টুইটার
...